দেশব্যাপী করমেলা শুরু মঙ্গলবার

SHARE

করসেবা প্রদান ও কর সচেতনতা বাড়াতে প্রতিবছরের মত এবারও সারাদেশব্যাপী আয়কর মেলার আয়োজন করেছে জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর)। ‘উন্নয়ন ও উত্তরণ, আয়করের অর্জন’ শ্লোগানকে সামনে রেখে এবারের মেলার প্রতিপাদ্য হচ্ছে ‘আয়কর প্রবৃদ্ধির মাধ্যমে সামাজিক ন্যায়বিচার ও ধারাবাহিক উন্নয়ন নিশ্চিতকরণ’।
আগামী ১৩ নভেম্বর মঙ্গলবার দেশব্যাপী করমেলা শুরু হচ্ছে। রাজধানী ঢাকাসহ বিভাগীয় শহরে সপ্তাহব্যাপী মেলা চলবে ১৯ নভেম্বর পর্যন্ত। রাজধানীর মেলা হবে মিন্টো রোডের অফিসার্স ক্লাব প্রাঙ্গণে। এ ছাড়া সব জেলা শহরে চার দিন এবং ৩২টি উপজেলায় দুই দিন মেলা হবে। পাশাপাশি ৭০টি উপজেলায় এক দিন ভ্রাম্যমাণ মেলা অনুষ্ঠিত হবে।
ঢাকায় মেলার উদ্বোধন করবেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত।
আজ রোববার এনবিআর সভাকক্ষে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে সংস্থার চেয়ারম্যান মো. মোশাররফ হোসেন ভূইয়া এসব তথ্য জানান।
তিনি বলেন, প্রতিবছরের মত এবারের মেলায়ও করদাতারা আয়কর বিবরণীর ফরম জমা দিতে পারবেন। নতুন করদাতারা ইলেকট্রনিক কর শনাক্তকরণ নম্বর (ই-টিআইএন) নিতে পারবেন। আবার পুনঃ নিবন্ধন করে ই-টিআইএন নেওয়ার সুযোগ রয়েছে পুরনো করদাতাদের।
তিনি জানান, একই ছাদের নিচে সব সেবা মিলবে। করদাতার শুধু প্রয়োজনীয় কাগজপত্র সঙ্গে আনলেই হবে।
সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের উত্তরে মোশাররফ হোসেন বলেন, মেলা আয়োজনের পাশাপাশি করনেট সম্প্রসারণের জন্য বিভিন্ন উদ্যোগ নেয়া হয়েছে।এর মধ্যে রয়েছে জনপ্রতিনিধিদের জন্য ই-টিআইএন বাধ্যতামূলক করা, উপজেলা পর্যায়ে কর অফিস সম্প্রসারণ এবং ঢাকা সিটি করপোরেশন এলাকায় বাড়ীর মালিক ও ভাড়াটিয়াদের জন্য জরিপ কার্যক্রম পরিচালনা করা।
তিনি আরো বলেন, বর্তমান ৩৫ লাখ ই-টিআইএনধারীর সংখ্যাকে আগামী ২ বছরে ৫০ লাখে উন্নীত করা হবে। বর্তমানে মাত্র ২০ লাখ আয়কর রিটার্ন দাখিল হচ্ছে। রিটার্ন দাখিলের এই সংখ্যা ৩৫ লাখে উন্নীত করা হবে।
সংবাদ সম্মেলন শেষে এনবিআর চেয়ারম্যান করমেলা প্রচারণার জন্য ট্রাক শোভাযাত্রার উদ্বোধন করেন।
২০১০ সালে প্রথমবারের মত ঢাকা ও চট্টগ্রামে আয়কর মেলার আয়োজন করা হয়। এরপর প্রতিবছরই মেলার পরিধি বেড়েছে।
উল্লেখ্য, এবারের মেলায় সহজে রিটার্ন দাখিলের জন্য প্রতিটি করাঞ্চলের জন্য আলাদা বুথ থাকবে। ই-পেমেন্টের সুযোগ থাকবে। করদাতাগণকে মেলা প্রাঙ্গণে আয়কর রিটার্ন, ই-টিআইএন এবং চালান ফরম সরবরাহ করা হবে। করদাতারা মেলায় শুল্ক, ভ্যাট, সঞ্চয় অধিদফতর এবং অভ্যন্তরীণ সম্পদ বিভাগের যে কোন তথ্য জানতে পারবেন। মুক্তিযোদ্ধা, নারী, প্রতিবন্ধী ও প্রবীণ করদাতাদের জন্য আলাদা বুথ থাকবে।
এদিকে, আগামীকাল রাজধানীর একটি পাঁচতারকা হোটেলে সেরা করদাতাদের সম্মানিত করা হবে।