বিমানবন্দর থেকে উড়োজাহাজ চুরি করে উড্ডয়ন, কিছুক্ষণ পরে বিধ্বস্ত

SHARE

যুক্তরাষ্ট্রের সিয়াটল-টাকোমা আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে এক কর্মী যাত্রীবাহী উড়োজাহাজ ‘চুরি’ করে উড্ডয়ন করেছেন। তবে ঘটনার পরপরই সেটি কাছের সাগরে বিধ্বস্ত হয়। স্থানীয় সময় শুক্রবার রাতে ওই ঘটনা ঘটে।

বিবিসি ও এএফপির প্রতিবেদনে বলা হয়, বিধ্বস্ত হওয়া উড়োজাহাজটি হরাইজন এয়ারলাইনসের মালিকানাধীন ‘টারবোপ্রপ কিউ ৪০০ ’। বিধ্বস্ত হওয়া এই উড়োজাহাজে যাত্রীদের জন্য ৭৮টি আসন ছিল।

আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমগুলো সংশ্লিষ্ট এয়ারলাইনস কর্তৃপক্ষের বরাত দিয়ে বলছে, উড্ডয়ন করানোর সময় উড়োজাহাজটিতে কোনো যাত্রী ছিল না। দ্য টাইমসের প্রতিবেদনে বলা হয়, আত্মঘাতী হওয়ার উদ্দেশ্যেই উড়োজাহাজের ওই কর্মী বিমানটি উড্ডয়ন করান। ‘আত্মঘাতী’ হওয়া ২৯ বছর বয়সী ওই ব্যক্তি যুক্তরাষ্ট্রের পিয়ার্স কাউন্টির বাসিন্দা বলে কাউন্টি শেরিফের কার্যালয়ের বিবৃতিতে জানানো হয়।
সিয়াটল-টাকোমা আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর। এই বিমানবন্দর থেকে উড়োজাহাজটি উড্ডয়ন করে।
সিয়াটল-টাকোমা আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর। এই বিমানবন্দর থেকে উড়োজাহাজটি উড্ডয়ন করে
হরিজন এয়ারলাইনসের সহযোগী প্রতিষ্ঠান আলাস্কা এয়ারলাইনস এক বিবৃতিতে বলে, ‘এয়ারলাইনের এক কর্মী সিয়া-টাক থেকে অনুমতি ছাড়া খালি একটি উড়োজাহাজ নিয়ে আকাশে উড়াল দিয়েছেন। পরে সেটি সাউথ পিজেট সাউন্ডে বিধ্বস্ত হয়।’ উড়োজাহাজটি যে কেটরন দ্বীপের কাছে সাগরে বিধ্বস্ত হয়, এর কাছেই একটি সামরিক ঘাঁটি আছে। ঘটনার পরপর কিছুক্ষণ বন্ধ থেকে ওই বিমানবন্দরের কার্যক্রম স্বাভাবিক হয়।

তবে উড়োজাহাজ বিধ্বস্তের সঙ্গে জড়িত ব্যক্তির নাম-পরিচয় এখনো প্রকাশ করা হয়নি বলে বিবিসির প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়। এমনকি তিনি বেঁচে আছেন, না মারা গেছেন, তা-ও বলা হয়নি।

সিয়াটল টাইমসের প্রতিবেদনে বলা হয়, উড্ডয়নের পর এয়ার ট্রাফিক কন্ট্রোল থেকে ওই ব্যক্তিকে অবতরণ করানোর চেষ্টা করা হয়। কিন্তু তিনি তাতে রাজি হননি। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়া ভিডিওতে উড়োজাহাজটিকে আকাশে লক্ষ্যহীনভাবে উড়তে দেখা যায়।

এএফপির প্রতিবেদনে বলা হয়, ওই বিমানটির পরপরই দুটি এফ-১৫ জেট বিমান উড্ডয়ন করে। তবে স্থানীয় কর্তৃপক্ষের দাবি, এই ঘটনার সঙ্গে কোনো সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডের যোগসাজশ নেই। পাশাপাশি বিধ্বস্ত উড়োজাহাজের সঙ্গে ওই ফাইটার বিমানগুলোরও কোনো সম্পর্ক নেই। তবে বিমানবন্দরের প্রধান প্রশাসকের মতে, এটি আত্মঘাতী ঘটনার বাইরে আর কিছুই নয়। তিনি বলেন, ‘আমরা আত্মঘাতী ব্যক্তিকে জানি। এর সঙ্গে আর কেউ জড়িত নয়।’

যুক্তরাষ্ট্রের ওয়াশিংটনের উত্তর-পশ্চিম প্রদেশের গুরুত্বপূর্ণ এই বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষ টুইট বার্তায় জানায়, ‘এক বিমানকর্মী একটি যাত্রীহীন বিমান নিয়ে অবৈধভাবে উড্ডয়ন করে।’