ঈদ উৎসবে তরুণদের পছন্দ রঙিন পাঞ্জাবি

SHARE

৩১ মে, ২০১৮ ইং-
পাঞ্জাবি বরাবরই বাঙালি ছেলেদের পছন্দের পোশাক। যেকোনো উৎসব পাঞ্জাবির প্রতি ছেলেদের বাড়তি আকর্ষণ যোগ করে। আর সেটা যদি হয় ঈদের উৎসব, তাহলে তো কথাই নেই। ঈদের দিন সকালে গোসলের পর পাঞ্জাবি গায়ে চড়িয়ে কোলাকুলির মধ্য দিয়ে শুরু হবে ঈদ আনন্দ। পছন্দের পাঞ্জাবি কেনার জন্য রমজানের শুরু থেকেই থাকে ছেলেদের প্রস্তুতি। এবারের ঈদকে কেন্দ্র করে শপিং মল কিংবা দর্জি বাড়িতে তাদের উপস্থিতি চোখে পড়ার মতো।

পাঞ্জাবি কেনা-কাটার আনন্দ থেকে পিছিয়ে নেই শিশু থেকে বুড়োও, শপিং মল থেকে শুরু করে ফুটপাতে ধুম পড়েছে পাঞ্জাবি কেনাবেচার। ক্রেতাদের পছন্দ মাথায় রেখে ফ্যাশন হাউজগুলোও বাহারি নকশার পোশাকের পসরা সাজিয়েছে।

ফ্যাশন ডিজাইনাররা বলছেন, এবারের ঈদে পাঞ্জাবিতে রয়েছে শর্ট, সেমি লং এবং ট্রেডিশনাল প্যাটার্ন। আরামের দিকেও নজর রাখছেন তারা। যেহেতু গরমে ঈদ, তাই হালকা রং দিয়ে পাঞ্জাবির কাপড়ে আরাম দিতে সুতিকে বেশি প্রাধান্য দিয়েছে বেশিরভাগ পাঞ্জাবির ফ্যাশন হাউসগুলো। পাশাপাশি সিল্ক, সেমি সিল্ক, জর্জেট, ভয়েল, খাদি, অ্যান্ডিও কাপড়ও থাকছে। এভাবেই ফ্যাশন হাউসগুলো আলাদা করে সাজিয়েছে চমকপ্রদ সব পাঞ্জাবির ঈদ-কালেকশন।

বসুন্ধরা শপিং কমপ্লেক্স, যমুনা ফিউচার পার্ক, আজিজ সুপার মার্কেট, নিউমার্কেট, বেইলি রোড, খদ্দর মার্কেট, পীর ইয়ামেনী মার্কেট, গাউছিয়া, সেজান পয়েন্ট, ইস্টার্ন মল্লিকা, ইস্টার্ন প্লাজা, বায়তুল মোকাররম মার্কেটসহ বিভিন্ন শপিং মল ঘুরে দেখা গেছে, ঈদ বাজারে সুতি, পিওর তসর সিল্ক, ধুপিয়ানা সিল্ক, খদ্দর কটন, জামদানিসহ বিভিন্ন ধরনের কাপড়ের পাঞ্জাবি এসেছে বাজারে। হলুদ, নীল, বেগুনি, কালো, ম্যাজেন্টা, কমলাসহ নানা রঙের বাহারি পাঞ্জাবির প্রতি ক্রেতাদের আকর্ষণ লক্ষ্য করা গেছে। বাহুবলী, সুলতান, রইস, পিকে, টিউবলাইটসহ বিভিন্ন নামের চোখধাঁধানো পাঞ্জাবির প্রতি তরুণ ক্রেতাদের মনোযোগ বেশি দেখা গেছে। বিক্রেতারা এসব পাঞ্জাবির দাম হাকছেন তিন হাজার থেকে পাঁচ হাজার টাকা পর্যন্ত।

পছন্দের পাঞ্জাবি কিনতে অনেকে শপিং মলগুলোতে বিভিন্ন ব্র্যান্ডের নিজস্ব শোরুম যেমনঃ অঞ্জন’স, ক্যাটস আই, ইজি, প্লাস পয়েন্ট, কাপড়-ই বাংলা, কে ক্র্যাফট, ব্যাঙ, লা রিভ, কুমুদিনী, মায়াসির, স্মার্টেক্স, লুবনান, ইয়েলো, স্বদেশী, দেশি-দশ, গ্রামীণ মেলাসহ বিভিন্ন শোরুমে ঢুঁ মারছেন ক্রেতারা। পছন্দ হলে অনেকে কিনছেন, আবার অনেকে পছন্দ করে রাখছেন, পরে কিনবেন বলে। এসব শোরুম থেকে ৫’শ থেকে ৪ হাজার টাকার মধ্যে বৈশাখের পাঞ্জাবি কিনতে পারছেন ক্রেতারা। অন্যদিকে ক্রেতার আকর্ষণ বাড়াতে কেউ কেউ ১০ শতাংশ পর্যন্ত ছাড়ও দিচ্ছেন।

ইন্ডিয়ান ব্র্যান্ড মান্যবর ঈদে পাঞ্জাবির ফ্যাশনে তাদের নতুন করে যোগ করেছে পাঞ্জাবি কটি সেট। ১২ রঙের কটি দিয়ে সুতি কাপড়ের সাদা রঙের পাঞ্জাবি ও পায়জামা দিয়ে তৈরি পাঞ্জাবি কটি সেট বাজারে এনেছে প্রতিষ্ঠানটি। পাশাপাশি ১০ শতাংশ ছাড় দিয়েছে।

অনেকে নিজেদের পছন্দসই পাঞ্জাবি বানাতে দর্জির শরণাপন্ন হচ্ছেন। তারা বলছেন, ঈদের পাঞ্জাবিতে চোখে পড়ার মতো বিষয় হল বৈচিত্র্যের। বাহারি বৈচিত্র্য থাকে ঈদের পাঞ্জাবিগুলোতে। তবে ফ্যাশন হাউজগুলোতে সব সময় পছন্দের রং ও নকশার পাঞ্জাবি পাওয়া যায় না। তাই নিজেদের যুত্সই পাঞ্জাবি বানিয়ে নিতে রমজানের শুরুতেই দর্জি বাড়িতে অর্ডার দিয়েছেন।

এদিকে নিম্ন আয়ের মানুষের জন্য মতিঝিল থেকে গুলিস্তান ও পল্টন এলাকার ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীরা পাঞ্জাবির পসরা সাজিয়ে বসেছেন। ফুটপাতের ব্যবসায়ীরা বলছেন, বেচাকেনা ভালো। তবে বৃষ্টি আর রাস্তা কাটার কারণে এখনো জমে ওঠেনি।